কেন ভারতীয় হিন্দুরা মুনাওয়ার ফারুকীকে সহ্য করে না : Fact with evidence

মুনাওয়ার ফারুকী একজন স্ট্যান্ড আপ কৌতুক অভিনেতা। তার লক্ষ লক্ষ অনুসারী রয়েছে। ইদানিং ২০১৪ এর জানুয়ারী মাসে সে BigBoss নামক একটি রিয়্যালিটি শোতে মুনাওয়ার জয়ী হয়েছে। তার সম্পূর্ন নাম মুনাওয়ার ইকবাল ফারুকী। মুনাওয়ার গত 2020 সালে ভারতের হিন্দু দেবী-দেবতাদের নিয়ে কটুক্তি করার জন্য হেফাজতে কাটিয়েছিল।

সেই ঘটনার প্রসঙ্গে Time নামক একটি সংবাদ পত্র ফারুকীর পক্ষ নিয়ে এই শীর্ষক দিয়ে প্রকাশ করেছে, How An Indian Stand Up Comic Found Himself Arrested for a Joke He Didn’t Tell. ( অনুবাদ: কীভাবে একজন ভারতীয় স্ট্যান্ড আপ কমিক এমন একটি রসিকতার জন্য গ্রেফতার হলেন যা তিনি বলেননি)। সে কি সত্যিই এমন আপত্তিকর কিছু বলেনি যার জন্য তাকে এরেস্ট করা হয়েছে। আজকে আমাদের এই প্রতিবেদনে- এর ফ্যাক্ট চেক করবো। 

এটা কি কোন সংবাদপত্রের হেডলাইন হওয়া উচিত? এই আর্টিকেলটি লিখেছেন সোনিয়া ফালেইরো। ফালেইরো "দ্য গুড গার্লস: অ্যান অর্ডিনারি কিলিং-এর লেখক।

একজন লেখক বা লেখিকার ভাষার ওপর দক্ষতা থাকে। সেই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে। সোনিয়া ফালেইরো মুনাওয়ার ফারুকীর দোষ ঢাকার চেষ্টা করেছে। ফারুকীর কি বলেছে, অথবা বলেনি, সেটা কোন সংবাদমাধ্যম ঠিক করে দিতে পারেনা। এটা লেখা উচিৎ নয় "A Joke He Didn’t Tell"। 

সংবাদপত্র কখনো দোষীর পক্ষ নিয়ে কথা বলে না। সংবাদপত্র উভয় পক্ষের বক্তব্যকে পাশাপাশি রেখে সাধারণ জনগণকে বিচার করার সুযোগ দেয়। 

নিচে একটি ভিডিওতে দেখানো হয়েছে যেখানে মুনাওয়ার ফারুকীর আপত্তিকর মন্তব্য গুলো। দেখুন:—

Credit: YouTube Channel – Viral Marathi News Maharashtra

"ম্যেরা প্রিয়া ঘর আয়া ও রামজি, Ram ji don't give f**k about your Piya. He said আমার প্রিয়া ঘরে এসেছে। রামজি বলছেন আমি নিজে ১৪ বছর বাড়ি যাইনি। সীতা শুনে ফেললে তো ডাউট করবে। If Your husband is in, why you updating my husband. Bitch! সীতা তো মাধুরীর ওপর আগে থেকেই সন্দেহ করে। ওই যে গানটা আছে না, "তেরা করু গিন গিন গিন গিন ইন্তজার..." । তার মানে হল সে বনবাস গুনছে।"

একজন অস্ট্রেলিয়ান লেখিকা Isobelle Carmody বলেছিলেন 

Laughter is a powerful weapon for it carries the light. To laugh is to defy the darkness. -Isobelle Carmody

এই অস্ত্র কে ব্যাবহার করেই ধর্মীয় ও রাজৈতিক অসন্তোষ চলছে। ঋষি ভরত হাস্যরস কে তিনটি বিভাগে ভাগ করেছিলেন —উত্তম, মধ্যম এবং অধম। কোন ব্যক্তির বিপর্যয় ও করুন অবস্থাকে নিয়ে উপহাস করা অধম ক্যাটেগরির হাস্যরস। 

একজন মুসলিম হয়ে শ্রীরাম এবং মা সীতার বনবাসকে ঘিরে হাস্য কৌতুক কেন করবে? শ্রীরাম এবং মা সীতা লক্ষ লক্ষ হিন্দুর শ্রদ্ধা ও আবেগের জায়গা করে আছে। ঠিক এর বিপরীতে তুলনা করে দেখুন চার্লি হেবডোর ইসলামের নবী ও আয়েশার অশ্লীল কার্টুনের ঘটনাকে। সেই যেখানে এটি ছাপা হয়েছিল, সেই অফিসে সন্ত্রাবাদীরা আক্রমন করেছে। সেই হেবডোর Editor কে হত্যা করা হয়েছে। 

এদিক ভারতের হিন্দুরা কিন্তু ফারুকীকে তাঁর এই অপ কর্মের জন্য আইনী ব্যবস্থা নিয়ে জেলে পাঠিয়েছে। সেটাকেই এখন প্রশ্ন করা হচ্ছে।

ভারতের বাইরে বসে সোনিয়া ফালেইরো নাম্নী এক মহিলা ভারতের আইন ব্যবস্থার ওপর প্রশ্ন তুলছে। এই ধরণের দ্বিচারিতার কোনো যুক্তি নেই। একটি নির্দিষ্ট ধর্মবিশেষ যার ওপর অনেক দেশেই অসন্তোষ ও সাম্প্রদায়িক বিবাদের তকমা লেগেই থাকে। সেই ধর্ম বিশেষ কে সাপোর্ট দেয়ার জন্যে বামপন্থী লেখকের কেন মাঠে নেমেছে? এই ভিডিও দেখুন:

মুনাওয়ার ফারুকী
হিন্দু উৎসব গুলোর সঙ্গে সাম্প্রতিক বিবাদকে দিয়েছে এই মুনাওয়ার ফারুকী।

কিছু বুঝলেন? হিন্দু উৎসব গুলোর সঙ্গে সাম্প্রতিক বিবাদকে ঝুলে দিয়েছে এই মুনাওয়ার ফারুকী। এতেই কি স্পষ্ট হয়ে যায় না, ফারুকীর কি ধরনের হাস্য কৌতুকে রুচিশীল। 

এহেন অবস্থায় আপনিই বিচার করুন কেন ভারতীয় হিন্দুরা মুনাওয়ার ফারুকীকে সহ্য করে না। না আমরা এই একজনের কৃত কর্মের ওপর নির্ভর করে ঘৃণা করতে বলছিনা। আপনাকে সত্যের সম্মুখীন হয়ে সত্যকে অস্বীকার করার কথা বলছি। 

Post a Comment

নবীনতর পূর্বতন
InterServer Web Hosting and VPS
InterServer Web Hosting and VPS